শুক্রবার, অক্টোবর ২২

ছিল, নাই! : নূরুল আলম আতিক

0

শামীম কবীরের লেখা ‘জ্ঞানী ও পাঁচ বালক’ অবলম্বনে স্বল্পদৈর্ঘ চলচ্চিত্র ভাবনা


সিনপসিস


নির্জন টিলার ওপর ছোট্ট একটা ঘর। ঘরের বাইরে সাধু ধ্যান করছেন। তাঁর মুখোমুখি পাঁচ বালক ধ্যানমগ্ন। প্রকৃতিতে সন্ধ্যা নামে। সারাদিনের ধ্যানচর্চা সাঙ্গ করে সাধু শিষ্যদের জিজ্ঞেস করেন, ‘কী দেখলে?’ উত্তরে তারা বলে—

বালক ১: মেঘমালা
বালক ২: বৃক্ষরাজি
বালক ৩: পক্ষীকূল
বালক ৪: পতঙ্গদল
বালক ৫: একটা ঘর।

বালকদের কথায় অসন্তুষ্ট সাধু। এক ঘটি জল তাদের করপুটে ঢালেন, ‘এইবার ভালো মতো চোখ কচলাও!’ কথাগুলি বলে সাধু ঘরের দিকে এগিয়ে যান। পাঁচ বালক পরস্পর মুখ চাওয়া-চাওয়ি করে। ‘কী ভুল করলাম!’ এইমতো ভাবতে ভাবতে তারা দেখে গুরু সন্ধ্যাপ্রদীপ জ্বালাচ্ছেন। এরপর তাদের অবাক করে দিয়ে সাধু ঘরটায় আগুন ধরিয়ে দেন। জ্বলন্ত ঘরের সামনে ফের তাঁরা ধ্যানে বসেছেন। রাত কেটে ভোরের আলো ফোটে। ঘর পুড়ে ছাই! সারা রাতের ধ্যানচর্চা সাঙ্গ করে সাধু ফের তার শিষ্যদের জিজ্ঞেস করেন, ‘কী দেখলে?’ উত্তরে এবার তারা বলে—

বালক ১: অগ্নিকুণ্ডলি
বালক ২: পোড়াকাঠ
বালক ৩: ধোঁয়ারাশি
বালক ৪: ছাইস্তুপ
বালক ৫: ঘর ছিলো, ঘর নাই।


চিত্রনাট্য


দৃশ্য-১
স্থান : পাহাড়-টিলায় একটি কুঁড়েঘর
কাল: দিনের নানা সময়

পাত্র: প্রাণ প্রকৃতি ও একটি কুঁড়েঘর।

 

ক. আকাশের মেঘমালা/ কুয়াশা রাশিরাশি।
খ. পাহাড়ের কোল ঘেঁষে থাকা বৃক্ষরাজি।
গ. প্রকৃতির কোলে উড্ডয়নরত পক্ষিকূল।
ঘ. ঘাসের জঙ্গলের ওপর উড্ডয়নরত পতঙ্গকূল।
ঙ. টিলার উপর একটা কুঁড়েঘর।


দৃশ্য-২
স্থান : পাহাড়-টিলায় একটি কুঁড়েঘর
কাল: পড়ন্ত বিকেল
পাত্র: জ্ঞানী ও পাঁচ বালক

 

প্রকৃতিতে সন্ধ্যা নামছে। টিলার ওপর ঘরের দিকে পিঠ দিয়ে বসে ধ্যানমগ্ন সাধু। তাঁর মুখোমুখি পাঁচ বালক ধ্যান করছেন। সারাদিনের ধ্যানচর্চা সাঙ্গ করে সাধু শিষ্যদের জিজ্ঞেস করেন, ‘কী দেখলে?’ উত্তরে তারা বলে—

বালক ১: মেঘমালা
বালক ২: বৃক্ষরাজি
বালক ৩: পক্ষীকূল
বালক ৪: পতঙ্গদল
বালক ৫: একটা ঘর।

বালকদের কথায় অসন্তুষ্ট সাধু। এক ঘটি জল তাদের করপুটে ঢালেন, ‘এইবার ভালো মত চোখ কচলাও!’ কথাগুলি ব’লে সাধু ঘরের দিকে এগিয়ে যান। পাঁচ বালক পরস্পর মুখ চাওয়া-চাওয়ি করে। ‘কী ভুল করলাম!’


দৃশ্য-৩
স্থান : পাহাড়-টিলায় একটি কুঁড়েঘর
কাল: সন্ধ্যা
পাত্র: জ্ঞানী ও পাঁচ বালক

 

গুরু সন্ধ্যাপ্রদীপ জ্বালাচ্ছেন। এরপর শিষ্যদের অবাক করে দিয়ে সাধু ঘরটায় আগুন ধরিয়ে দেন। জ্বলন্ত ঘরের সামনে ফের তাঁরা ধ্যানে বসেছেন।


দৃশ্য-৪
স্থান : পাহাড়-টিলায় একটি কুঁড়েঘর
কাল: ভোর
পাত্র: জ্ঞানী ও পাঁচ বালক

 

রাত কেটে ভোরের আলো ফোটে। ঘর পুড়ে ছাই!
সারা রাতের ধ্যানচর্চা সাঙ্গ করে সাধু ফের তার শিষ্যদের জিজ্ঞেস করেন, ‘কী দেখলে?’ উত্তরে এবার তারা বলে—

বালক ১: অগ্নিকুণ্ডলি
বালক ২: পোড়াকাঠ
বালক ৩: ধোঁয়ারাশি
বালক ৪: ছাইস্তুপ
বালক ৫: ঘর ছিলো, ঘর নাই।


শামীম কবীরের : জ্ঞানী ও পাঁচ বালক


ক, খ, গ, ঘ, ঙ,– এই মোতাবেক পাঁচ বালককে পাঁচ বিন্দুতে দাঁড় করিয়ে দিয়ে জ্ঞানী তাদেরকে উত্তর দিকে তাকিয়ে থাকতে বলে নিজে গিয়ে ঢুকলো দক্ষিণে তার কুঁড়ে ঘরে। বালকদের অতশত জানবার কথা না। তারা উত্তরে তাকিয়ে দাঁড়িয়ে রইলো সারাদিন। বৈকালে ফিরে এসে পিঠে টোকা দিয়ে জ্ঞানী তাদেরকে প্রথমে ডানদিকে ঘুরে পাঁচ কদম তারপর বামে ঘুরে পাঁচ কদম তারপর বামে ঘুরে পাঁচ কদম তারপর বামে ঘুরে পাঁচ কদম হাঁটতে বললো। এইভাবে বিশ কদম হেঁটে এসে জ্ঞানীর সামনাসামনি দাঁড়ালো পাঁচ বালক। জ্ঞানী জিজ্ঞেস করলো : কী দেখলি তোরা এক এক করে বল।
পাঁচবালক যথাক্রমে উত্তর দিলো
……………………………………….. : বেড়াল বাচ্চা।
……………………………………….. : ধনেশ পাখি।
……………………………………….. : এরোপ্লেন।
……………………………………….. : রেলের গাড়ি।
……………………………………….. : কত্তো মেঘ।

জ্ঞানী তাদের এক এক জনের হাতে এক এক ঘটি সেদ্ধ পানি দিয়ে বললো ক’চলে চোখ ধুয়ে নিতে। তারপর আবার জিজ্ঞেস করলো : কী দেখলি তোরা এক এক করে বল।

পাঁচ বালক একে একে পাঁচবার বললো : দেখি নাই।

এরপর চোখ মুদে ধ্যানে বসলো জ্ঞানী ও পাঁচ বালক সকলে। ধ্যান আর ধ্যান। তবে সন্ধ্যাতারা ফুটে উঠবার সাথে সাথে ধ্যান থামালো জ্ঞানী। তারপর চকমকি ঠুকে একটা মশাল জ্বালিয়ে তার কুঁড়ের সামনে গিয়ে চিৎকার করে পাঁচ বালককে ডেকে বললো : দ্যাখ। এবং মশালটা ছুঁড়ে দিলো কুঁড়ের চালে। পাঁচ বালক পদ্মাসনে ব’সে দাউ দাউ আগুনের মধ্যে জ্ঞানীর ঘরটিকে পুড়তে দেখতে থাকলো আর জ্ঞানী সারাক্ষণ আগুনের দিকে পিছন ফিরে দাঁড়িয়ে রইলো দুই হাত বুকে বেঁধে। ভোর বেলায় আগুন শেষ হয়ে যাবার পর জ্ঞানী জিজ্ঞেস করলো : কী দেখলি। তোরা এক এক করে বল। পাঁচ বালক যথাক্রমে উত্তর দিলো

……………………………………….  : আগুন!
……………………………………….. : আগুন!
……………………………………….. : আগুন!
……………………………………….. : আগুন!
……………………………………….. : ঘর ছিলো ঘর নাই ।

জ্ঞানী মুচকি হেসে বললো : দেখি নাই।

শেয়ার করুন

লেখক পরিচিতি

টেলিভিশন নাট্যকার, চিত্রনাট্যকার এবং চলচ্চিত্র নির্মাতা।

error: আপনার আবেদন গ্রহণযোগ্য নয় ।