শনিবার, এপ্রিল ২০

‘মহাকালের রুদ্র ধ্বনি’ : নুসরাত সুলতানা

0

‘মহাকালের রুদ্র ধ্বনি’ আমার তৃতীয় কবিতার বই এবং পঞ্চম গ্রন্থ।

বইটিতে সামগ্রিক চেতনা, সমাজ বাস্তবতা, মানবতা আর জাগরণের কবিতা সন্নিবেশিত হয়েছে। একুশ শতকে প্রযুক্তির সর্বগ্রাসী আধিপত্য, উগ্র বিশ্বায়ন আর পুঁজিবাদ কুঁড়ে কুঁড়ে খাচ্ছে আমাদের মগজ আর মনন।

মহাকালের রুদ্র ধ্বনি

মহাকালের রুদ্র ধ্বনি | ধরন: কবিতা | প্রকাশক: অনুপ্রাণন | প্রচ্ছদ : তৌহিন হাসান | লিখিত মূল্য: ২২০ টাকা

এর সাথে যুক্ত হয়েছে ব্যাপক সাম্প্রদায়িক সংঘাত। জ্ঞান, মানবতা, প্রেম আর সম্প্রীতি যেন শামুকের মতো নিজেকে গুটিয়ে নিচ্ছে দিনের পর দিন। এই অন্ধ সময়ে তাই কোনো সমাজ সচেতন এবং রাজনীতি সচেতন কবি শিল্পের নামে কেবলই ফুল, পাখি জোছনা আর প্রেম নিয়ে নিজের কবি মানসকে ব্যস্ত রাখতে পারেন না। আমিও পারিনি সহজাত এবং স্বাভাবিক ভাবেই। তবে এ কথার মাধ্যমে এটাও বলতে চাই না আমার কবিতা কেবলই স্লোগানের পথ ধরে হেঁটেছে অনন্ত পথ।

প্রেমই আরাধনা, প্রেমই আকাঙ্ক্ষিত স্বপ্নের সারবত্তা।

যেদিন মানুষ বাঁচতে পারবে মানুষের অমল-ধবল অধিকার নিয়ে সেদিনের কবিদের আর লিখতে হবে না এমন আগুনের ফুলকি। সেদিন সব আগুনের ফুলকিগুলো ফুল হয়ে ফুটবে। উঠানে, উঠানে হিন্দু-মুসলমান, বৌদ্ধ নারীরা একে অপরের চুলে মেখে দেবে সুগন্ধি তেল। রাস্তায় হেঁটে বেড়াবে না কোনো পেট মোটা নগ্ন নিতম্বের শিশু, কোনো আবরারকে বন্ধুরা খুন করবে না, কোনো নুসরাতকে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে মারা হবে না আর বিশ্বায়নের নামে সাম্রাজ্যবাদীতা যাবে নির্বাসনে। তাই কবি হিসেবে আমারও একান্ত প্রত্যাশা এমন কবিতা যেন কবিদেরকে লিখতে না হয়।

শেয়ার করুন

লেখক পরিচিতি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তথ্যবিজ্ঞান ও গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনা বিষয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ মিলিটারী ইন্সটিটিউট অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজিতে সিভিলিয়ান ষ্টাফ অফিসার হিসেবে কর্মরত আছেন। প্রকাশিত গ্রন্থ, কবিতা- ছায়া সহিস (২০১৯), গহিন গাঙের ঢেউ (২০২০), মহাকালের রুদ্র ধ্বনি  (সেপ্টেম্বর ২০২২)। পত্রকাব্য- পায়রার পায়ে আকাশের ঠিকানায় (২০২১)। গল্পগ্রন্থ- মৌতাত (২০২২)।

error: আপনার আবেদন গ্রহণযোগ্য নয় ।