রবিবার, জুলাই ২১

শুক্রবারের কফি ও অন্যান্য কবিতা : আবু আফজাল সালেহ

0

পাখিটা তুমি


আমি বাদামি পছন্দ করতাম না
যখন পাখিটির বাদামিচোখ দেখলাম
কতই না উজ্জ্বল দেখলাম।

সে পাখি ওড়ে আর গান গায়
সূর্যাস্নাত বৃষ্টির পর রামধনু, দোয়েলের শিস
আমাকে মাতাল করে।

আমি সোন্দর্য চেয়ে চেয়েই মরতে চাই
আমি তোমাকে সামনে রেখেই মরতে চাই।


তোমার গিটারে ফুলগুলি নাচছে


সকালে সূর্যের উজ্জ্বল আলো
সোনারশ্মিতে দূর-দূরান্ত পর্যন্ত সোনালি-গালিচা।

পাহাড় আর মাঠের উপর দিয়ে সোনা ফেটে যাচ্ছে
প্রকৃতির সোনাপথ।

তোমার গিটারে ফুলগুলি নাচছে।


সুবিধাভোগী


সুবিধাভোগীরা ঠিক
বিপথগামী কুকুরের মতো
ভীত, লাজুক, পরাজিত
তারা সবসময় কুয়াশার মধ্যে লুকিয়ে রাখতে চায়।

সুগন্ধ আনতে সূর্য হতে হয়
প্রবালের মতো উজ্জ্বল লড়াই করতেই হয়।


তরুণের উচ্চাকাঙ্ক্ষার মতো স্বপ্ন


সুখের ঘ্রাণ বাতাসে ভেসে বেড়ায়
পাখিদের সুরেলা কিচিরমিচির
নীল-আকাশে স্তূপীকৃত ধবধবে মেঘ।
একটি নরম ঘুমের মধ্যে
সবুজ ঘাসে আমার ত্বক কিছু একটা অনুভব করছে
সূর্যালোকের উষ্ণ বাতাসে দুলছে।

একজন তরুণের উচ্চাকাঙ্ক্ষার মতো
মরিয়া হয়েছে আমার স্বপ্ন—
প্রস্ফুটিত হওয়ার জন্য
গ্রীষ্মের সূর্যের মতো উজ্জ্বল হচ্ছে ক্রমশ।

আমার দৃষ্টি স্বপ্নের দিকে স্থির ও প্রসারিত।


শুক্রবারের কফি


আমি ইচ্ছেগুলি পাশে নিয়ে শুক্রবারের কফি পান করি।
স্বাধীনতাকে মূল্যায়ন করি প্রতি সপ্তাহে
অভিযোজিত করে,
ইজি চেয়ারে ঘুরে ঘুরে স্বপ্নগুলি ঝালাই করি।

তোমার ভালোবাসা শরতের ভোরের শিশির
ইচ্ছেগুলিকে বন্য করে।
স্বপ্নগুলি কল্পনাকেও পেরিয়ে যেতে চায়
শুক্রবারের কফির ধোঁয়ার ভেতর দিয়ে।

 

শেয়ার করুন

লেখক পরিচিতি

কবি ও প্রাবন্ধিক। থাকেন চুয়াডাঙ্গা।

error: আপনার আবেদন গ্রহণযোগ্য নয় ।